• রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৩০ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
সামাজিক কাজে অবদান রাখায় সংবর্র্ধিত হলেন কাজিপুরের সোনামুখী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজিপুরে আনোয়ারা আজাদ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের ঈদ সামগ্রী বিতরণ কাজিপুরে আনোয়ারা আজাদ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের ঈদ সামগ্রী বিতরণ বগুড়ায় মাটিডালী যুব ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ঈদ সামগ্রী বিতরণ শিবগঞ্জে প্রবীণ কল্যাণ ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ সারিয়াকান্দি কুতুবপুর ইউনিয়নে হতদরিদ্রদের মাঝে চাল বিতরণ ধামরাইয়ের কালিয়াগারে জানালা ভাঙা নিয়ে তুমুল ঝগড়া ও সংঘর্ষ উপস্থাপনায় সেরা হওয়ার লড়াইয়ে বগুড়ার তামান্না খন্দকার ঈদ উপহার পেলেন কাজিপুরের ১৪শ দুস্থ পরিবার মোহাম্মদ নাসিমের জন্মদিনে কোরান শরিফ বিতরণ করলেন এমপি জয়

৯৯৯ নম্বরে ফোন পেয়ে চড়াই পাখি উদ্ধার করলো কাজিপুর ফায়ার সার্ভিস

রিপোর্টারঃ / ২৫৪ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশিত হয়েছেঃ বৃহস্পতিবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২২

কাজিপুর(সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ :  ফ্লোর থেকে বেশ খানিকটা উপরে মসজিদের স্বচ্ছ কাঁচের জানালার ভিতর  ভুল করে ঢুকে পড়ে এক চড়াই পাখি। দীর্ঘক্ষণ যাবৎ বের হবার জন্যে পাখিটি ছুটোছৃটি এবং ডাকাডাকি করে।কিন্তু বের হতে পারছিলো না। এদিকে মসজিদে আগত লোকজনও চড়াইটিকে বের করতে পারছিলেন না। অবশেষে ৯৯৯ সেবা নম্বরে ফোন করলে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন এসে পাছিটিকে উদ্ধার করে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার মেঘাই বাজারে নির্মানাধীন মডেল জামে মসজিদে।

স্থানীয় লোকজন জানান, বুধবার সন্ধ্যায় চড়াই পাখিটি মসজিদের জানালার দুই গ্লাসের ভিতর ঢুকে পড়ে বের হবার জন্যে ছুটোছুটি করতেছিলো। এসময় লোকজন পাখিটির চিৎকার শুনে এগিয়ে গিয়ে বের করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়।এসময় ঢাকা যাবার উদ্দেশ্যে উপজেলার শিমুলদাইড় গ্রামের গৃহবধু মারজিয়া খাতুন মসজিদের পাশে গাড়ির জন্যে অপেক্ষা করছিলেন। তিনি চড়াই পাখির ওই অবস্থা দেখে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করেন। পরে কাজিপুর ফায়ার সার্ভিসের ওয়ারহাউজ ইন্সপেক্টর মেহেরুল ইসলাম ও তার লোকজন আধা ঘন্টার চেষ্টায় পাখিটিকে উদ্ধার করে। এসময় তিনি বলেন, একজন গৃহবধুর পাখির প্রতি ভালোবাসায় আমরাও মুগ্ধ। নিরাপদে চড়াইটিকে আমরা ধরে ওই গৃহবধুর হাতে দিয়েছি। পরে পাখিটিকে অবমুক্ত করা হয়েছে।

মারজিয়া খাতুন জানান, যখন আমি সন্ধ্যায় মসজিদের নিকটে আসি তখন চড়াইটি জোরেসোরে বেরুবার জন্যে চেঁচামেচি ও ছুটোছটি করতেছিলো। পরে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করি। ওকে উদ্ধার করে ছেড়ে দিতে পেরে ভালো লাগছে।#


এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন