• রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
সামাজিক কাজে অবদান রাখায় সংবর্র্ধিত হলেন কাজিপুরের সোনামুখী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজিপুরে আনোয়ারা আজাদ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের ঈদ সামগ্রী বিতরণ কাজিপুরে আনোয়ারা আজাদ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের ঈদ সামগ্রী বিতরণ বগুড়ায় মাটিডালী যুব ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ঈদ সামগ্রী বিতরণ শিবগঞ্জে প্রবীণ কল্যাণ ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ সারিয়াকান্দি কুতুবপুর ইউনিয়নে হতদরিদ্রদের মাঝে চাল বিতরণ ধামরাইয়ের কালিয়াগারে জানালা ভাঙা নিয়ে তুমুল ঝগড়া ও সংঘর্ষ উপস্থাপনায় সেরা হওয়ার লড়াইয়ে বগুড়ার তামান্না খন্দকার ঈদ উপহার পেলেন কাজিপুরের ১৪শ দুস্থ পরিবার মোহাম্মদ নাসিমের জন্মদিনে কোরান শরিফ বিতরণ করলেন এমপি জয়

প্রাণি সেবায় বদলে গেছে উল্লাপাড়া উপজেলা ভেটেরিনারি হাসপাতালের চিত্র

রিপোর্টারঃ / ২৪ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশিত হয়েছেঃ সোমবার, ১৮ মার্চ, ২০২৪

লিখন আহমেদ, উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ)
উল্লাপাড়া উপজেলা প্রাণি সম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতালে প্রাণী চিকিৎসা সেবার মান বৃদ্ধি পেয়েছে। চিকিৎসা ছাড়াও উপজেলায় বেকারত্ব দুর করতেও ভুমিকা রাখছেন এ অফিসের কর্মকর্তারা। প্রতিদিন উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মানুষ তাদের গবাদি পশু নিয়ে প্রাণি সম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতালের দিকে ছুটছেন। এ অফিস থেকে গবাদিপশুর চিকিৎসা প্রদান, গবাদিপশুর কৃত্রিম প্রজনন, গবাদিপশুর টিকা প্রদান, হাঁস-মুরগির টিকা প্রদান, কৃষক/খামার প্রশিক্ষণ, উন্নত জাতের ঘাসের চারা/বীজ বিতরণ সহ নানান রকম সেবা পাচ্ছেন উপজেলাবাসী। এতে মানুষের গবাদি পশু পালনে আগ্রহ বাড়ছে। অনেক বেকাররা প্রশিক্ষন নিয়ে ব্যাংক ঋনের মাধ্যমে খামার করে স্বাবলম্বী হচ্ছে। বর্তমানে উল্লাপাড়া উপজেলায় ৩২হাজার ৫শ হাঁস-মুরগী, গরু-ছাগলের খামার রয়েছে। চিকিৎসা সহ খামারিদের বিভিন্ন পরামর্শ নিয়মিত তদারকি করছেন প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ স্বপন চন্দ্র দেবনাথ।
উল্লাপাড়া উপজেলা প্রাণি সম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে, এক কৃষক তার গবাদি পশু নিয়ে হাসপাতালের সামনে দাড়িয়ে আছেন। তিনি বলেন, আমার গরুটির পেট ফুলে গেছে ঠিক মতো খাচ্ছে না এলাকার পশু ডাক্তারদের দিয়ে চিকিৎসা করিয়েও কোন কাজ না হওয়ায় এখানে নিয়ে এসেছি। এখানে আসার পর এখানকার ডাক্তার আমার গরুটি দেখে কিছু ঔষুধ লিখে দিয়েছেন।
রহিমা খাতুন নামে এক গৃহবধু বলেন, আমি বাড়িতে মুরগী পালন করি। মাঝে মধ্যে মুরগীর ভ্যাকসিনের জন্য আসি। এখানকার স্যারেরা আমাকে মুরগী পালনে নানান রকম পরামর্শ দেন। উল্লাপাড়া উপজেলা প্রাণি সম্পদ অফিসের ভেটেরিনারি সার্জন ডাঃ শামিম আখতার বলেন, আমরা প্রাণি চিকিৎসা মানুষের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা করছি। চিকিৎসার অভাবে যেন কোন প্রাণির মৃত্যু না হয় এ বিষয়ে সচেষ্ট রয়েছি। প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ স্বপন চন্দ্র দেবনাথ বলেন, এ উপজেলায় অনেকেই খামার করে স্বাবলম্বী হয়েছে। প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ পরামর্শ এবং তাদের পশুর চিকিৎসা নিতে আসছেন। আমরা সেবার মাধ্যমে তাদেরকে সন্তুুষ্ট করার চেষ্ঠা করছি।
এ/হ


এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন